বাসাইল উপজেলার আওয়ামীলীগের  সম্পাদক প্রার্থী  হিসাবে জরিপে এগিয়ে আব্দুস ছাত্তার জমাদার 


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ত্যাগী আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস ছাত্তার জমাদার আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতা-কর্মী ও কাউন্সিলরদের দৃষ্টিতে জরিপে এগিয়ে। 
জানা যায়, দীর্ঘ ৩০বছরের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রয়াত বীরমুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক জমাদার, যিনি আওয়ামী লীগের দূর্গ ঘাটি গড়ে তুলেছিলেন বাসাইল ও কাশিল। তথা বাসাইল উপজেলার আওয়ামী লীগের দূর্দিনের কান্ডারী হিসাবে সেসময়কার ত্যাগী নেতা। আর তারই হাত ধরে আব্দুস ছাত্তার জমাদার ১৯৭৮সালে ছাত্রলীগেপদার্পণ করেন।
তিনি ১৯৯৫সালে গাজীপুর আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক একটি প্রোগ্রামে সক্রিয়ভাবেঅংশগ্রহণ করে ক্ষমতাসীন বি,এন,পি সরকারের পেটোয়া পুলিশ বাহিনীর হামলার শিকার ও গ্রেফতার হন।
থেমে থাকেনি তার প্রজ্ঞা, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে আওয়ামী লীগের  প্রয়াত নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক এর সাহসী পদচারণায় আব্দুস ছাত্তার জমাদারকে প্রেরণাজোগিয়েছে।
বাসাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের একাধিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলাপকালে জানা যায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল ও সিনিয়র নেতৃবৃন্দ আব্দুস ছাত্তার জমাদারকে সম্পাদক হিসাব পেতে চান।
তারা ভরসা পান আব্দুস ছাত্তার জমাদারকে নিয়ে। 
আঃ ছাত্তার জমাদার বর্তমানে বাসাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হিসাবে সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করছেন। 
তিনি ছাত্রজীবনে স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের মধ্য দিয়ে ও পরবর্তীতে বিএনপি-জামায়াত সরকার বিরোধী আন্দোলনএবং ১/১১-এ জননেত্রী শেখ হাসিনার মুক্তির আন্দোলনসহ সকল আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। 
তিনি সরকারি সা’দত কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক কার্যকরী সদস্য ছিলেন। 
ও ওই সময়ে পরবর্তীতে সরকারি সা’দত কলেজ ছাত্র সংসদের ক্রীড়া সম্পাদক ছিলেন।
তিনি ১৯৯২সালে বাংলাদেশ গেমস এ্যাথলেট(৪০০ মিটার দৌড়)  স্বর্ণজয়ী হন।
যোগ্যতার মাপকাঠিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে বিএসএস(অনার্স), এম এস এস(রাষ্ট্র বিজ্ঞান) উত্তীর্ণ হন।

শেয়ার করুন
2 Comments
  1. CharliePatrick May 7, 2022 Reply
  2. Williambah July 1, 2022 Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *