টাঙ্গাইল Archive

বাসাইল উপজেলা আওয়ামী লীগে রাজনৈতিক সংকটের অভিযোগ!

বাসাইল উপজেলা আওয়ামী লীগে রাজনৈতিক সংকটের অভিযোগ!

জনদূর্ভোগপূর্ণ রাস্তা ও নতুন রাস্তা নির্মানে ইটের বদলে জাওয়া-খোয়া দিয়ে নির্মাণের অভিযোগ! কাউন্সিলর ও মেয়রের পিতার নামে ঠিকাদারিপ্রতিষ্ঠান হলেও কাজে ফাঁকির অভিযোগ! নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাসাইল উপজেলা আওয়ামী লীগে রাজনৈতিক সংকট দেখা দিয়েছে বলে অধিকাংশ নেতা-কর্মীরা …

টাঙ্গাইল সদর উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ইউপি চেয়ারম্যানদের লিখিত অভিযোগ প্রত্যাহার করেও ফের সমন্য়হীনতার অভাব
জানালেন ইউপি চেয়ারম্যানগণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃটাঙ্গাইল সদর উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১২টি ইউপির ১২জন চেয়ারম্যানদের লিখিত ১২টি অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার বিষয়ে অভিযোগ ও পরে তা প্রত্যাহারের বছর খানেকপেরিয়ে গেলেও উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ফের সমন্বয়হীনতার অভাব ও স্বজনপ্রীতি বিরাজমান রয়েছে বলে …
কাতুলীর অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করতে ফের চেয়ারম্যান হিসেবে মোঃ ইকবাল হোসেনকে চান ইউপিবাসী

কাতুলীর অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করতে ফের চেয়ারম্যান হিসেবে মোঃ ইকবাল হোসেনকে চান ইউপিবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  টাঙ্গাইল সদর উপজেলার কাতুলী ইউপির অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করতে ফের চেয়ারম্যান হিসেবে মোঃ ইকবাল হোসেনকে চান ইউপিবাসী। মোঃ ইকবাল হোসেন ইউনিয়ন পরিষদের অর্ন্তভূক্ত সুপার মার্কেটে উন্নীত করেন। ইউপির অভ্যন্তরের মানুষ যমুনার পার্শ্ববর্তী ধলেশ্বরী নদীর এলাকা হিসাবে বেড়িবাঁধ দেয়া অত্যন্ত জরুরি বলে জানান। ৬/৭ কিঃ মিঃ রাস্তা হলে স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে বলে মন্তব্য করেন কাতুলী পরিষদবর্গ। ইউনিয়ন পরিষদ সুত্র জানায়, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন ভাতা মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে দিয়েছেন। বি,জি,এফ এর চাউল কাতুলী ইউপির চেয়ারম্যান সুষ্ঠুভাবে ইউপিবাসীর মাঝে বিতরণ করেন বলে স্থানীয়রা জানান করোণাকালীন খেটে খাওয়া মানুষের কাজ নেই।  ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন সরকারের কাছে অনুরোধ করেন তাদের যেন খেয়াল রাখা হয়, যেন না খেয়ে থাকে।  নানা জটিলতা হতে নিরসন পেতে হবে। কাতুলী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জানায়, যতই দিব চাওয়া-পাওয়ার শেষ নেই যারা বিত্তশালী তাদেরকে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বলছি।  তিনি জানান, বাল্য বিবাহ নির্মূলে মেয়ে বড় হওয়ার সাথে সাথেই জন্মনিবন্ধন নিতে আসে।  ১৮ বছর পূর্ণ না হলে অভিভাবকদের বলি যাতে বিয়ে না দেয়।  কিছু দিন বয়স বাকি থাকলে সহযোগিতা করি। মানুষ সচেতন হচ্ছে, নিজের মেয়ে কে অল্প বয়সে বিয়ে দিলে ক্ষতি হয়, এটা তারা বুঝতে শিখেছে। তিনি আরো জানান, কিছু কিছু মাদক সেবিকে আমি ভালো হওয়ার সুযোগ দিয়েছি। ওয়াশ করিয়ে। তাদের খাদ্য সহায়তা দিয়েছি, যেন মাদক সেবন না করে ও বিক্রি না করে। সুষ্ঠু বিচার প্রদান করেছি। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি/ সম্পাদক ও এমপি মহোদয় আমার কাজে সন্তুষ্ট আমি যদি ভালো কাজ করে থাকি, তবে আবারও অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করতে রয়ে যাব।